দেশ

সময়ে বিয়ের আসরে বর না আশায় অন্য পাত্রের গলায় মাল্যদান কনের।

সবকিছুই তৈরি, বিয়ের সাজে সজ্জিত হয়ে কনে অপেক্ষা করছেন। বিয়ের নির্দিষ্ট সময় পেরিয়ে গেছে অনেকক্ষণ। তার পরেও প্রায় ঘণ্টা দুয়েক অতিক্রান্ত। তাই একপ্রকার বাধ্য হয়ে পাশের বাড়ির এক যুবকের গলাতে বরমাল্য পরিয়ে দিলো কনে। আর তার কিছুক্ষণ পরে আসল বর বর যাত্রী নিয়ে হাজির হল। হাস্যকর হলেও এমনটাই ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের বিজনৌরের ধামপুরে। জানা গেছে এক গণবিবাহের আসরে কিছুদিন আগেই চার জোড়া যুবক-যুবতীর বিবাহ হয়।সেই সময় ওই যুবক বলে কয়েকদিনের মধ্যেই আনুষ্ঠানিকভাবে সামাজিক প্রথা মেনে স্ত্রীকে বাড়ি নিয়ে যাবেন।

সেইমতো দিন স্থির হয়েছিল। কিন্তু বিয়ের আগে বরপক্ষ পন চায়।যা দেওয়ার সামর্থ্য মেয়ের বাবার ছিল না। এই নিয়ে টালবাহানা শুরু হয়। বিয়ের নির্দিষ্ট সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরও বর না আশায় মেয়ের বাড়ির লোক ধরে নিয়েছিল আর বর আসবে না। তাই তারা পাশের বাড়ির যুবকের সাথে মেয়ের বিয়ে দিয়ে দেয়। আর তার ঠিক পরে বর বরযাত্রী সমেত এসে হাজির হয়। ততক্ষণে অবশ্য তার কপাল পুড়েছে। ঝামেলা বেধে যায় দুই পক্ষের মধ্যে। বরের বাড়ির অভিযোগ তাদেরকে বেঁধে মারধর করা হয়েছে।ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। শেষ পর্যন্ত অবশ্য পুলিশি হস্তক্ষেপে বিষয়টি মেটে।

 4,363 total views,  85 views today

Leave a Reply