দুই পিসি বসুন্ধরা ও যশোধরা বরাবর বিজেপিতে রয়েছেন। পিসতুতো ভাই দুষ্যন্ত বিজেপির সদস্য। যদিও বাবা মাধবরাও সিন্ধিয়ার ছায়া অনুসরণ করে এতকাল পরিবারের বাকিদের সঙ্গে রাজনৈতিক বৈপরীত্য বজায় রেখে চলছিলেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। তিনি ছিলেন কংগ্রেসের অন্যতম সেরা মুখ। এবার কংগ্রেস থেকে ইস্তফা দিয়ে পরিবারের সেই রাজনৈতিক দূরত্ব অবশেষে ঘুচতে চলেছে। গোয়ালিয়রের সিন্ধিয়া প্যালেসের রং সার্বিকভাবে গেরুয়া হওয়ার পথে। কারণ কংগ্রেসের দীর্ঘদিনের সঙ্গী হাইপ্রোফাইল গোয়ালিয়রের মহারাজা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া দল থেকে ইস্তফা দিয়ে বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন। তিনি সরাসরি বিদ্রোহ ঘোষণা করেছেন সোনিয়া গান্ধী ও রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বের বিরুদ্ধে।

সোমবার সকালে অমিত শাহ তাকে গাড়িতে চাপিয়ে সোজা নিয়ে আসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাসভবনে। সেখানে তাঁকে স্বাগত জানান মোদি। তাঁর সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠকের পর স্থির হয়, তাঁকে রাজ্যসভার এমপি করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসেবে মোদি সরকারের অন্তর্ভুক্ত করা হবে। আর এর জেরেই কংগ্রেসের কাছে মহা সংকটের কারণ হল জ্যোতিরাদিত্য একা নন, তাঁর সঙ্গে ২২ জন কংগ্রেস বিধায়ক পদত্যাগ করেছেন।

ফলে মধ্যপ্রদেশে ১৫ বছর পর ২০১৮ সালে ক্ষমতায় আসার দেড় বছরের মধ্যে কমল নাথের নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস সরকারের পতনের সম্ভাবনা একপ্রকার নিশ্চিত বলেই রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মত।

 143 total views,  2 views today