September 22, 2020

ভালোবাসার পরীক্ষা নিতে মেয়ের প্রেমিকের মুখে বিষ ঢালল মা

‘তোর প্রেমের কত জোর আছে আজ তা দেখব’, প্রেমিককে বেধড়ক মারধরের পর তার মুখে বিষ ঢালার সময় এমনই মন্তব্য করতে থাকে প্রেমিকার মা। ভ্যালেন্টাইন্স ডে এর আগের দিন পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুর থানার মহম্মদপুর গ্রামের এই ঘটনায় রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তমলুকের একটি নার্সিংহোমে ভর্তি রয়েছে রতন মান্না নামে ওই যুবক। নার্সিংহোমে আশঙ্কাজনক অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। ঘটনায় ছাত্রীর মা সহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জানা গেছে ওই গ্রামের রতনের সঙ্গে পাশের গ্রাম শিলাখালি নবম শ্রণীর ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক বছর ধরে তাদের এই প্রেম চললেও সরস্বতী পুজোর দিন তারা দুজনে ঘুরতে গেলে সম্পর্কের কথা দুই বাড়িতে জানাজানি হয়ে যায়।

যদিও মেয়ের বাড়িতে এই সম্পর্ক মেনে নেয়নি। রতন বেকার হয় নাইনে পড়া মেয়ের বিয়ের দেখাশোনা শুরু করে দেয় ওই ছাত্রীর পরিবার। যদিও গুরগ্রামের এক যুবকের সঙ্গে মেয়ের বিয়ের কথাবার্তা বেশ কিছুটা এগিয়ে গেলেও পরে সম্বন্ধ ভেঙে যায়। এর জন্য ছাত্রীর পরিবার রতনকে দায়ী করে বুধবার বিকেলে তার বাড়িতে হাজির হয় বিয়ের ব্যাপারে কথাবার্তা হবে বলে জানিয়ে মেয়ের বাড়ির লোকজন সেখানে গেলেও রতন ও তাঁর দাদা স্বপন মান্নাকে আচমকা মারধর করতে শুরু করে। এরপর এই রতনের মুখে বিষ ডেলে দেয় ওই ছাত্রীর মা। প্রথমে রতনকে ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং অবস্থার অবনতি হওয়ায় তমলুকের নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়েছে। রতনের দাদা বলেন, মেয়েটির মা ভাইকে মেরে ফেলার পরিকল্পনা করেছিল। তাই সঙ্গে করে নিয়ে এসেছিল। মারধর করার সময় ভাইয়ের মুখে বিষ ঢেলে দেওয়ার সময় চিৎকার করে বলছিল, তোর প্রেমের কত জোর তা দেখব। আমরা ওদের শাস্তি চাই।