জেলা

জেলায় প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, একদিনে জেলায় রেকর্ড সংক্রমণ, আক্রান্ত ১২১ জন

দক্ষিণ দিনাজপুরঃ জেলায় একদিনে ফের রেকর্ড সংক্রমণ, আক্রান্ত ১২১ জন।গতকাল গভীর রাতে মালদা মেডিকেল কলেজের ভিআরডিএল ল্যাব থেকে ১২১ জনের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৬৭৩।জানা গেছে এদের মধ্যে ৬৫ জনই বালুরঘাটের। তবুও মানুষ অসচেতনভাবে রাস্তায় ঘোরাঘুরি করছে, প্রশাসনের নির্দেশে তাঁকে কার্যত বুড়ো আঙুল দেখিয়ে করোনা ভাইরাস কে গুরুত্ব না দিয়ে মাছ ছাড়া পথে ঘাটে ঘুরে বেড়াচ্ছে অসচেতন মানুষ জানিয়ে খুব জমেছে শুভবুদ্ধি সম্পন্ন মানুষের মধ্যে তারা এইসব বন্ধের পাশাপাশি পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপের দাবি জানিয়েছেন।জানিয়েছেন।একজনরে দেখা কোথায় কতজন আক্রান্ত হয়েছে।

হিলি মোড় ৩, খাদিমপুর ২, উত্তমাশা ২,বংগী ২, সন্ধ্যা হল এক,চকভবানী এক, বাজারপাড়া এক, কালাচাঁদ কলোনী এক, সাহেব কাছারি ১, গার্লস কলেজ পাড়া ১, বেলতলা পার্ক ১,বালুরঘাট ১,মঙ্গলপুর ১, মিলন সংঘ ১, ঘাট কালি ১, চকভৃগু ১,পূর্ব হরিহরপুর ১,ডাংগি ৩, বাদামাইল ১, খিদিরপুর ১, বোল্লা ১, চকমাধব ১, চকশ্যাম ১, গোপিনগর ১ ও বালুরঘাট আদালতের ৩৪ জন।বালুরঘাট গ্রামীন এলাকায় সংক্রামিত হয়েছেন ১০ জন। কুমারগঞ্জে ২৫ জন, কুশমন্ডির ৫ জন, গঙ্গারামপুরের বিডিও অফিসের কর্মী সহ ৪ জন, তপনের ১০ জন, হরিরামপুরের ৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

বুনিয়াদপুরের রশিদপুর হাসপাতালে কর্মী সহ ৫ জনের দেহেও করোনা ভাইরাস মিলেছে। শুক্রবার রাতে এমনই রিপোর্ট এসেছে মালদা মেডিক্যাল কলেজের পরীক্ষাগার থেকে। ১৩, ১৪ ও ১৫ জুলাই আক্রান্তদের সোয়াব সংগ্রহ করে, পরীক্ষার জন্য মালদা মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়েছিল।

এদিনের ১২১ জনের মধ্যে তিনজনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে ট্রুনাটে। এই সংখ্যাটা আরো বাড়তে পারে। এদের মধ্যে ৩০৯ জন ছুটি পেয়ে গেছে। বাকিদের সেফ হাউসে এবং হোম আইসোলেশন রেখে চিকিৎসা করা হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দপ্তর। আক্রান্তদের সেফ হাউজে নিয়ে আসার প্রক্রিয়া শুরু করেছে স্বাস্থ্য দপ্তর।

 395 total views,  4 views today

Leave a Reply